কেশবপুরে গলায় শাড়ি পেঁচিয়ে বৃদ্ধার আত্মহত্যা

আ.শ.ম. এহসানুল হোসেন তাইফুর, নিজস্ব প্রতিবেদক

কেশবপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে বৃদ্ধা ঠাকুর দাসী নামের এক বৃদ্ধ মহিলা গলায় শাড়ি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলা বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে। সে ওই গ্রামের রাধাপদ দাসের স্ত্রী। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে।
থানা ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে উপজেলা বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের রাধাপদ দাসের স্ত্রী ঠাকুর দাসী (৬০) পারিবারিক কলহের জের ধরে বাড়ির অদূরে একটি কাঁঠাল গাছে গলায় শাড়ি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তার পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ওই সময় গলায় ফাঁসের ঘটনাটি পরিবারের লোকজন হাসপাতাল কর্তৃপÿের নিকট গোপন করে এবং সেখান থেকে দ্রæত মরদেহ নিয়ে বাড়িতে চলে আসে। এরপর বৃহস্পতিবার সকালে তড়িঘড়ি করে পরিবারের লোকেরা লাশ সৎকারের জন্য শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার পথে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কেশবপুর থানা পুলিশ আত্মহত্যাকারী বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।
এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন বলেন, বৃদ্ধা ঠাকুর দাসীর গলায় শাড়ি পেঁচিয়ে আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। লাশের গলার বাম পাশে দাগের চিহ্ন রয়েছে। মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বৃহস্পতিবার সকালে যশোর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Views: 13